Home Uncategorized সৈয়দপুরে ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে পৌর পাইকারী কাঁচাবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সংবাদ সম্মেলন

সৈয়দপুরে ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে পৌর পাইকারী কাঁচাবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সংবাদ সম্মেলন

by Dhaka Office

এম আর আলী টুটুল, সৈয়দপুর (নীলফামারী ) প্রতিনিধি: নীলফামারীর সৈয়দপুর পাইকারী কাঁচাবাজার ব্যবসায়ী সমিতির উদ্যোগে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। ১৪ জুন বেলা ১২ টায় শহরের বাইপাস সড়ক সংলগ্ন সমিতির নিজস্ব বাজারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন সমিতির উপদেষ্টা আলহাজ্ব আব্দুল কুদ্দুস মন্ডল।

পৌর কাঁচাবাজার নিয়ে সৃষ্ট জটিলতার প্র্রেক্ষিতে বিষয়টি তুলে ধরার জন্য লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন সভাপতি মিজানুর রহমান লিটন। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন সাধারণ সম্পাদক তোফায়েল মোহাম্মদ আজম। বক্তব্য রাখেন ইকু গ্রুপের চেয়ারম্যান শিল্পপতি আলহাজ্ব সিদ্দিকুল আলম, সাংবাদিক এম আর আলম ঝন্টু, ফয়েজ আহমেদ প্রমুখ। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, সংঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি মোস্তফা মারুফ বিন কবির, সহ সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম শাহিন, সাংগঠনিক সম্পাদক বজলার রহমান বাবলুসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। ব্যবসায়ীরা জানান, পাকিস্তান আমলে শহরের শহীদ ডাঃ জিকরুল হক সড়ক সংলগ্ন আজিমুদ্দিন হোটেলের পিছনে গড়ে ওঠা বাজারটি ১৯৯৪ সালে শহরের শহীদ তুলশীরাম সড়কস্থ নয়াবাজার এলাকায় নেয়া হয়। এখানে অধিকাংশ জায়গা ব্যক্তিমালিকানাধীন। ৭৮ শতকের মধ্যে পৌর পরিষদের নিজস্ব ১২ শতক, খাস জমি ৩ শতক মাত্র।

যে কারণে এখানে ব্যবসা করতে হলে খরচ বেশি। তাছাড়া গাড়ী পার্র্কিং ও প্রবেশ সুযোগ না থাকায় মালামাল লোড আনলোড করার ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ভ্যানভাড়া দিতে হয় এবং মালামালও নষ্ট হয়। সে সাথে ব্যস্ততম শহীদ তুলশীরাম সড়কে সৃষ্টি হয় চরম যানজট। একারণে বাজারের সকল ব্যবসায়ীরা সম্মিলিতভাবে বিগত ২০০৮ সালে সৈয়দপুর পৌর পাইকারী কাঁচামাল ব্যবসায়ী সমিতি গঠন করি। সমিতির নিজস্ব অর্র্থায়নে ২০১২ সালে সৈয়দপুর- রংপুর বাইপাস সড়ক সংলগ্ন মিস্ত্রিপাড়া সেপটি ট্যাংক এলাকায় ১১২ শতক জমি ক্রয় কিনে ২০১৫ সালে প্রায় ২ কোটি টাকা খরচ করে দোকান বানানো হয়েছে। এই দোকানগুলো লটারীর মাধ্যমে সমিতির সদস্যদের মধ্যে পজেশন হিসেবে দেয়া হয়েছে। কিন্তু নানা কারণে উদ্বোধনের পরও দীর্ঘদিন নতুন জায়গায় বাজারটি স্থায়ীভাবে শুরু করা সম্ভব হয়নি।

এই পরিস্থিতিতে গত ১১ এপ্রিল উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি, পৌর পরিষদ, থানা প্রশাসন যৌথ উদ্যোগে শহর থেকে পাইকারী কাঁচা বাজার এখানে স্থানান্তর করেন। ৩ মাস অত্যন্ত সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে এখানে বাজার বসছে। গত ১ জুন লকডাউন শিথিল করা হলে নয়াবাজারের ব্যক্তিগত দোকান মালিকরা আবারও শহরের ভিতরে কাঁচাবাজার বসায়। এতে উপজেলা প্রশাসনসহ পৌর কর্তৃপক্ষ ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সমন্বয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় যে এখন থেকে বাইপাস সড়কেই কাঁচাবাজার বসবে। সে অনুযায়ী পৌর কর্তৃপক্ষ নয়াবাজর থেকে পাইকারী দোকান সরিয়ে নিয়ে ১৩ জুনের মধ্যে বাইপাস সড়কে নিয়ে যাওয়ার জন্য মাইকিং করে।

এই ঘোষণা প্রদানের বিরুদ্ধে গত ১১ জুন বৃহস্পতিবার গুটি কয়েক ব্যবসায়ী যারা পৌরসভার নিজস্ব জমি ও খাস জমি দখল করে বিনা পয়সায় ব্যবসা করে সুবিধাভোগী এবং দোকানমালিকরা ভাড়াটিয়া লোকজনকে দিয়ে সাদা কাপড় পড়ে বিক্ষোভ করে। যার সাথে প্রকৃত পাইকারী কাঁচামাল ব্যবসায়ী বা আড়তদার কারও সম্পৃক্ততা নেই। আমরা বাইপাস সড়কের নিজস্ব জমিতে নির্মিত আমাদের নিজেদের দোকানেই ব্যবসা পরিচালনা করতে চাই। এক্ষেত্রে প্রশাসনসহ সংবাদকর্মী ও সৈয়দপুরের সচেতন জনগণের সহযোগিতা কামনা করছি।

বিপি/কেজে

You may also like

Leave a Comment

কানেকটিকাট, যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রকাশিত বৃহত্তম বাংলা অনলাইন সংবাদপত্র

ফোন: +১-৮৬০-৯৭০-৭৫৭৫   ইমেইল: bpressusa@gmail.com
স্বত্ব © ২০১৫-২০২৩ বাংলা প্রেস | সম্পাদক ও প্রকাশক: ছাবেদ সাথী