Menu

সর্বশেষ


বাংলাপ্রেস ডেস্ক: রাজধানীর গুলশানের বেসরকারি ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুনের ঘটনা ঘটেছে। সেখান থেকে পাঁচজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষ। তারা সবাই করোনা রোগী হিসাবে হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

বুধবার রাত পৌনে ১০টার পরে হাসপাতালটিতে আগুনের সূচনা হয় বলে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

রাত সাড়ে ১০টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুল আহসান বলেন, ‘অগুনের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট গিয়ে কাজ শুরু করে। সোয়া ১০টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।’

এরপর রাত পৌনে ১১টার দিকে নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্মকর্তা রাজু আহমেদ বলেন, ‘সেখান থেকে পাঁচজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।’

এ ব্যাপারে ইউনাইটেড হাসপাতালের কমিউনিকেশনস অ্যান্ড বিজনেস ডেভেলপমেন্ট বিভাগের প্রধান শাগুফা আনোয়ার রাত সাড়ে ১০টার দিকে বলেন, ‘বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে আগুনের সূত্রপাত হয়। করোনা সন্দেহভাজন রোগীদের চিকিৎসা দেয়ার জন্য হাসপাতালের বহিরাঙ্গণে আইসোলেশন ইউনিট তৈরি করা হয়েছিল। সেখানেই আগুনের ঘটনা ঘটে।’

প্রথমে স্বীকার না করলেও রাত সোয়া ১১টার দিকে ইউনাইটেড হাসপাতালের কমিউনিকেশনস অ্যান্ড বিজনেস ডেভেলপমেন্ট বিভাগের প্রধান পাঁচজনের লাশ উদ্ধারের কথা জানান। এ সময় তিনি আরো বলেন, ‘এই আইসোলেশন ইউনিটে যাদের করোনা পজিটিভ শুধু তাদেরই চিকিৎসা হয়। সেই হিসেবে বলতেই পারেন তারা করোনা আক্রান্ত রোগী ছিলেন।’

নিহতরা হলেন- রিয়াজুল আলম (৪৫), খোদেজা বেগম (৭০), ভেরুন অ্যান্থনি পল (৭৪), মো. মনির হোসেন (৭৫) ও মো. মাহবুব (৫০)।

বিপি/কেজে