Menu

সর্বশেষ


বাংলাপ্রেস ডেস্ক: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমরা শুধু সমালোচনার জন্য নয় মানুষকে বাঁচানোর জন্য, সহযোগিতা করার জন্য সরকারের কাছে বারবার হাত বাড়িয়ে দিয়েছি। কিন্তু সরকার তা গ্রহণ করেনি।

আজ বুধবার দুপুরে উত্তরায় নিজের বাসা থেকে ভার্চ্যুয়াল প্রেস কনফারেন্সে তিনি এমন অভিযোগ করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, প্রাথমিকভাবে যদি লকডাউনটা করা যেত তাহলে সংক্রমণের হার অনেক কম হতো। এখনতো সারাদেশে গ্রামেগঞ্জে ছড়িয়ে পড়েছে। পরীক্ষাও নেই। পরীক্ষা হলেই ধরা পড়ছে। যেসব দেশ লকডাউন তুলে নিতে চাচ্ছে তারা তিনমাস লকডাউন করে এখন কিছুটা শিথিল করার চেষ্টা করছে। আমাদের এই ঘনবসতির দেশে শক্তভাবে করতে না পারলে হবে না।

করোনা মহামারিতে বিএনপি নেতারা মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করছে- আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের এমন বক্তব্যের জবাবে ফখরুল বলেন, উনি সঠিক কথা বলছেন না। আমরা অত্যন্ত দৃঢ়তার সঙ্গে মানুষের পাশে আছি। আমি এর আগেও সংবাদ সম্মেলনে বলেছি, ইতোমধ্যে আমরা প্রায় সোয়া কোটি মানুষের কাছে পৌঁছে গেছি। দেওয়ার দায়িত্ব সরকারের। তারপরও আমাদের সাধ্যমতো মানুষকে ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছি।

তিনি বলেন, আমরা প্রথম থেকে সরকারকে অনুরোধ করেছি, অর্থনৈতিক প্যাকেজ দিয়েছি। ৬১ হাজার কোটি টাকা শুধু সাধারণ মানুষকে দিতে বলেছিলাম, যা অত্যন্ত বাস্তবসম্মত ছিল। কিন্তু সরকার যে প্যাকেজ দিয়েছে তার মধ্যে ৭৭ হাজার কোটি টাকা শুধু ব্যাংকের ঋণ।

এ সময় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৩৯তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ১২ দিনে কর্মসূচি ঘোষণা করেন তিনি।

বিপি/কেজে