Menu

সর্বশেষ


ছবি: সংগৃহীত

বাংলাপ্রেস ডেস্ক: নির্বাচন কমিশন নির্ধারিত ৩০ জানুয়ারিই ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। আন্দোলন চললেও এই তারিখ আগানো বা পেছানোর কোনো সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. আলমগীর। তিনি জানিয়েছেন, স্বরসতি পূজা হবে ২৯ জানুয়ারি আর ভোট হবে ৩০ জানুয়ারি। সুতরাং কোনো সমস্যা হওয়ার কথা না।

বুধবার সন্ধ্যায় কমিশনের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সচিব এসব কথা বলেন।

ইসির বৈঠকে ভোটের তারিখ পরিবর্তনের বিষয়ে কোনো আলোচনা হয়েছে কি না সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, ‘আজ এ বিষয়ে কোনো আলোচনাই হয়নি। বৈঠকটি ছিল আমাদের (ইসি) আভ্যন্তরীণ বিষয়ে, সেই বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।’

আলমগীর বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনতো আগেই বলেছে সরকারি ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ২৯ তারিখ পূজা। ৩০ তারিখে পূজা নেই। ফেব্রুয়ারির ১ তারিখ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষা। মাঝে সময় শুধু একদিনই আছে ৩০ তারিখ, যেদিন নির্বাচন করা যায়।’

সচিব বলেন, ‘আপনারা জানেন যে, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ তারা মহামান্য হাইকোর্টে রিট করেছে, সেটিও খারিজ হয়ে গিয়েছে। কারণ তাদের যে যুক্তি উপস্থাপন করেছেন সে যুক্তি তারা প্রতিষ্ঠা করতে পারেননি। মহামান্য আদালত নির্বাচন কমিশন কর্তৃক যে নির্ধারিত তারিখকে যুক্তিযুক্ত মনে করেছেন এজন্য তারা খারিজ করে দিয়েছেন। তারা বলেছিলেন আপিল করবেন, আমি কিছুক্ষণ আগেও খোঁজ নিয়েছি এখন পর্যন্ত কোনো আপিল দায়ের হয়নি। যেহেতু আপিল দায়ের হয়নি, আপিল বিভাগ থেকে কোনো নির্দেশনা আসেনি অতএব ৩০ জানুয়ারি তারিখ ঠিক আছে।’

বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আন্দোলন শুরু হয়েছে এবং আগামীকাল থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে। এটি নির্বাচনের ওপর প্রভাব ফেলবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে ইসি সচিব বলেন, ‘প্রভাব পড়ার কথা না। কারণ কয়েক দিনের ভেতর তারা বুঝে যাবে যে, এটা ঠিক হচ্ছে না। এটা হয়তোবা তারা না বুঝে করেছে। কারণ জিনিসটা বুঝতে হবে স্বরস্বতি পূজা হলো ২৯ তারিখ। নির্বাচন ৩০ তারিখ। এরপর ১ তারিখ থেকে এসএসসি পরীক্ষা। ভোট পেছনোর কোনো সুযোগ নেই, আগানোরও কোনো সুযোগ নেই। নির্বাচনের জন্য উপযুক্ত সময় ৩০ তারিখ, সেদিনই নির্বাচন হবে। ছাত্ররা যারা আন্দোলন করছে তাদের বয়স অল্প, নবীন , কেউ বুঝে কেউ না বুঝে হয়তো করছে। আমার ধারণা একটু পরেই তারা বুঝে যাবে যে, এটা করা ঠিক হচ্ছে না।’

প্রসঙ্গত, ৩০ জানুয়ারি ঢাকার দুই সিটিতে ভোটের দিন ধার্য করেছে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু সরস্বতী পূজার কারণে ভোটের তারিখ পরিবর্তনের জন্য আদালতে রিট আবেদন করেন আইনজীবী অশোক কুমার ঘোষ। মঙ্গলবার এই রিট আবেদনটি খারিজ করে দিয়েছে হাইকোর্ট।

বিপি/কেজে


সর্বশেষ সংবাদ