Menu

সর্বশেষ


বাংলাপ্রেস ডেস্ক: মার্কিন হামলায় নিহত ইরানের সামরিক কমান্ডার কাসেম সোলাইমানি হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মাথা চেয়েছে ইরান। বিনিময়ে ৮০ মিলিয়ন ডলার ঘোষণা করা হয়েছে।

নিউজিল্যান্ড হেরাল্ডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় রোববার ইরানের মাশহাদ শহরের রাস্তায় জনতার ঢল নামে। হাজার হাজার বিক্ষুদ্ধ ইরানি ‘আমেরিকা নিপাত যাক’সহ বিভিন্ন মার্কিন বিরোধী স্লোগান দিতে থাকে।

এসময় সোলাইমানির শ্রদ্ধা অনুষ্ঠানে অংশ নিতে আসা জনসমূদ্রের সামনে দেশটির শীর্ষ নেতারা ঘোষণা দেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের মাথা এনে দিতে পারলে ৮০ মিলিয়ন দেওয়া হবে। দেশটির একাধিক টিভি চ্যানেল তা সম্প্রচার করেছে বলে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে উল্লেখ করা হয়েছে।

সোলাইমানিকে হত্যার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রকে কঠোর প্রতিশোধের হুমকি দিয়ে শীর্ষ এক নেতা বলেন, ‘দেশের প্রায় ৮০ মিলিয়ন জনসংখ্যা রয়েছে। প্রত্যেকে যদি এক ডলার করে দেয় তাহলে ৮০ মিলিয়ন হবে। আর যে ব্যক্তি ট্রাম্পের মাথা এনে দিতে পারবে তাকে ওই ৮০ মিলিয়ন ডলার দেওয়া হবে।’

গত শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) ভোররাতে ইরাকের রাজধানী বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যুক্তরাষ্ট্রের এক হামলায় ইরানের কুদস বাহিনীর ক্ষমতাধর জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্দেশেই সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়েছে বলে পেন্টাগনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়। পরবর্তীতে ইরানের হুমকিরমুখে সোলাইমানিকে আমেরিকার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারী আখ্যা দিয়ে হত্যার কথা জানান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

পারমাণবিক চুক্তি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দেশ দুটির মধ্যে উত্তেজনা চলে আসছে। বারবার তেহরানে হামলার হুমকি দেয়া ট্রাম্প এমন সময় ইরানের এ নেতাকে হত্যা করলেন যখন তাকে অভিসংশন প্রক্রিয়া চলছে।

চলতি বছরের মার্কিন প্রেসিন্টে নির্বাচনে জনগণের মন জয় করতেই তিনি এ হামলা করেছেন বলে বিরোধী শিবির থেকে বলা হচ্ছে। এ নিয়ে স্বয়ং নিজ ঘরে বেশ কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েছেন ট্রাম্প।

বিপি/কেজে