Menu

সর্বশেষ


শেখ ফরিদ ,পঞ্চগড়, প্রতিনিধি: দেবীগঞ্জ উপজেলায় চলতি রবি মৌসুমে উফশী জাতের ১হাজার হেক্টর জমিতে সাথী ফসল হিসেবে সরিষার চাষ করা হয়েছে। মাঠে মাঠে এখন শুধু হলুদে সমারোহ। অপরদিকে সরিষার ফুল থেকে মধু সংগ্রহ করতে ব্যস্ত মৌ মাছিরা। মৌ মৌ শব্দে পুরো মাঠ মুখরিত। কম খরচে বেশি লাভের আশায় কৃষকেরা বোরো ধানের জমিতে আগাম এ ফসলের চাষ করেছেন।

কৃষকেরা উচ্চ ফলনশীল জাত হিসাবে উফশী, টলি-৭ ও সম্পদ এই তিন জাতের সরিষা চাষ করেছেন। আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে সরিষার বাম্পার ফলনের আশা করছেন এলাকার সরিষা চাষীরা। তবে উপজেলায় সরিষার চাষ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। সবুজপাড়া গ্রামের কৃষক শুনিল জানান, সরিষা উৎপাদনে সার কম প্রয়োগ করতে হয় , সেচ, কীটনাশক ও নিড়ানির প্রয়োজন হয় না , জমির উর্বরা শক্তি বৃদ্ধি পায়। খরচ কম ও স্বল্প সময়ে এ ফসল হয়ে থাকে। এক কৃষক জানান, এ মৌসুমে ধান চাষের উপযুক্ত ৫ বিঘা জমিতে তিনি সরিষার আবাদ করেছেন। সরিষা তুলে নিয়ে ওই জমিতে তিনি বোরো ধান রোপন করবেন।

এ বিষয়ে দেবীগঞ্জ উপজেলার কৃষি অফিসার শামীম ইকবাল সাংবদিককে বলেন, চলতি মৌসুমে উপজেলায় গত বছরের তুলনায় এবছর রেকর্ড পরিমান জমিতে সরিষার চাষ হয়েছে। ধানের বাজার খানিকটা খারাব হওয়ার কারনে কৃষকরা বর্তমানে সরিষাসহ অন্যান্য সাথী ফসল চাষের দিকে বেশি ঝুকছেন। কারণ এসব ফসলে খরচ ও পরিশ্রম কম ও লাভ বেশি। সরিষার বিভিন্ন রোগ বালাইয়ে কৃষকদের করণীয় ও তা থেকে সরিষার আবাদ রক্ষার কৌশল সর্ম্পকে পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে।

বিপি/কেজে