Menu

সর্বশেষ


 

রমেশ চন্দ্র সরকার, রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) থেকে : ক’দিন আগেও মাঠে মাঠে দোল খাচ্ছিল সোনালী ধান। বাড়ির উঠান গুলো কৃষাণ/কৃষাণীদের পদভারে মুখরিত ছিল। ধানের ফলনও হয়েছে বাম্পার। কিন্তু ধানের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায় কৃষকরা হতাশ। ধানের মন প্রতি ১০৪০ টাকা দরে কৃষকের নিকট থেকে ধান ক্রয়ের সরকারি সিদ্ধান্তে কৃষক কিছুটা আশান্বিত হলেও বরাদ্দ কম থাকায় তারা উদ্বিগ্ন।

আজ ৮ ডিসেম্বর (রবিবার) রাজারহাট উপজেলা অফিসার্সক্লাবে ৩টি ইউনিয়নের কৃষকদের তালিকা থেকে সরকারিভাবে ধান ক্রয়ের লক্ষ্যে লটারি মাধ্যমে নির্ধারিত হলো কৃষকের ভাগ্য। ডিজিটাল পদ্ধতিতে লটারি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানা যায়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ যোবায়ের হোসেন , রাজারহাট উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জনাব মোঃ আশিকুল ইসলাম মন্ডল সাবু, উপজেলা তথ্য কর্মকর্তা, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, প্রেসক্লাব রাজারহাট এর সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ রফিকুল ইসলাম, রাজারহাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ আসাদুজ্জামান আসাদসহ স্হানীয় গণমাধ্যমের কর্মীবৃন্দ।

প্রসঙ্গত, আজ উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের মধ্যে উমর মজিদ, নাজিমখাঁন ও বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের ৪৪৮ জন কৃষক লটারির মাধ্যমে নির্বাচিত হলো। উল্লেখ্য, অ্যাপের মাধ্যমে কৃষকের নিকট থেকে ধান ক্রয় এটাই প্রথম।

বিপি/কেজে


সর্বশেষ সংবাদ