Home প্রবাস কুচক্রীদের ষড়যন্ত্রের ফলে কানেকটিকাটের ‘ফোবানা সম্মেলন’ বাতিল

কুচক্রীদের ষড়যন্ত্রের ফলে কানেকটিকাটের ‘ফোবানা সম্মেলন’ বাতিল

by bnbanglapress
Published: Updated:
A+A-
Reset

নিজস্ব প্রতিবেদক: যুক্তরাষ্ট্রের কানেকটিকাট অঙ্গরাজ্যে ফেডারেশন অব বাংলাদেশি অ্যাসোশিয়েশন্স ইন নর্থ আমেরিকা (একাংশ, ফোবানা) সম্মেলন ভেস্তে গেছে। প্রথমবারের মত ফোবানা সম্মেলন কানেকটিকাটে আয়োজনের খবরে প্রবাসী বাংলাদেশিদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ দেখা দিয়েছিল। কিন্তু প্রবাসীদের সেই স্বপ্ন ভেঙ্গে দিয়েছে নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক ষ্টিয়ারিং কমিটির কতিপয় পদালোভী কুচক্রী ব্যক্তি। ষ্টিয়ারিং কমিটির বর্তমান চেয়ারম্যানের পদ পরিবর্তনের চেষ্টা করে চাপ প্রয়োগ করায় তা মানতে রাজি হননি আয়োজক কমিটি। ফলে কানেকটিকাটে ফোবানা সম্মেলন বাতিল করা হয়।
আগামী সেপ্টেম্বর ১-৩ লেবার ডে’র সপ্তাহান্তে কানেকটিকাটের নিউ হ্যাভেনে শহরে উক্ত ফোবানা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল। এ সম্মেলনের আয়োজক হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছিলেন বাংলাদেশি আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব কানেকটিকাট (বাক)। বাক-কে দায়িত্ব প্রদানের কয়েকমাস পরেই নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক ষ্টিয়ারিং কমিটির চেয়ারম্যান পদ নিয়ে অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন নেতৃবৃন্দরা। চলে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ। নিউ ইয়র্কে সংবাদ সম্মেলনে প্রচন্ড বাক-বিতন্ডাও হয় নেতৃবৃন্দের মাঝে।
গত ৬ জুন নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘটনা ঘটে। উক্ত সংবাদ সম্মেলনে মূলত সংগঠনটির কর্তৃত্বের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে বাক-বিতন্ডাসহ চরম হট্টগোলের সুচনা হয়। পরে সবাইকে শান্ত করে সংবাদ সম্মেলন শেষে সবাই ঐক্যবদ্ধ একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি। তিক্তরা বেড়ে দ্বিগুন হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনের শুরুতেই আলী ইমাম স্বাগত বক্তব্য দেন। এরপর লিখিত বক্তব্য দেন শাহ নেওয়াজ। আলী ইমাম তার বক্তব্যে নিজেকে ফোবানার চেয়ারম্যান দাবী করায় গিয়াস আহমেদসহ কয়েকজন এর প্রতিবাদ করেন এবং সংবাদ সম্মেলন হৈচৈ আর হট্টগোলে পরিণত হয়। চলতে থাকে বাক-বিতন্ডা। এ সময় গত বছর কানাডা সম্মেলনের ফোবানার স্টিয়ারিং কমিটির একটি সভার ডকুমেন্ট প্রদর্শন করে গিয়াস আহমেদ বলেন, আমাদের কাছে সভার ডকুমেন্ট আছে, সেখানে সভার স্বাক্ষরও রয়েছে। এতে আমি ফোবানার চেয়ারম্যান আর শাহ নেওয়াজ মেম্বার সেক্রেটারী। উল্লেখ্য, অতি সম্প্রতি গিয়াস আহমেদ আহুত এক সংবাদ সম্মেলনে ফোবানা’র উপদেষ্টা ও স্টিয়ারিং কমিটির নাম ঘোষণা করেন।
সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরছিলেন আয়োজকরা। তারা সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে থাকেন। এ সময় এক সাংবাদিক বর্তমানে ফোবানার স্টিয়ারিং কমিটির চেয়ারম্যান কে? এমন প্রশ্ন জিজ্ঞেস করলে সেখানে উপস্থিত মোহাম্মদ হোসেন খান বলেন, গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আলী ইমাম শিকদার ফোবানার বর্তমান চেয়ারম্যান। আর এমন উত্তরে মুহূর্তেই চড়াও হয়ে ওঠেন গিয়াস আহমেদ। যিনি স্টিয়ারিং কমিটিতে চেয়ারম্যান হিসেবে রয়েছেন। এ সময় গিয়াস আহমেদ বলেন, এটা বলার জন্য আপনাকে এই অথরিটি কে দিয়েছে? হু আর ইউ? সংবাদ সম্মেলনে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হলে সবাই দাড়িয়ে যান। এ সময় বেশ কয়েকজন পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করেন। পরে কয়েক মিনিট উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। কয়েক মিনিট পরিস্থিতি অস্বাভাবিক থাকার পর ঠিক আগের বিষয়ে আবারও আলোচনা শুরু হয়। তখন সংবাদ সম্মেলনে আবারও বিশৃ্ঙ্খলা দেখা দেয়। পরে স্টেয়ারিং কমিটির চেয়ারম্যান গিয়াস আহমেদ এবং মেম্বার সেক্রেটারী শাহ নেওয়াজ তাদের কমিটির বিভিন্ন আলাপ আলোচনা এবং পরামর্শ সবার সামনে তুলে ধরেন। এক পর্যায়ে সংবাদ সম্মেলন স্বাভাবিকভাবে চলে। কিন্তু ফের শুরু হয় বিশৃঙ্খলা। বেশ কিছুক্ষণ বিশৃঙ্খল অবস্থায় থাকার পর সংবাদ সম্মেলনে দাড়িয়ে সবাইকে উদ্দেশ্য করে মেম্বার সেক্রেটারী শাহ নেওয়াজ সবাইকে শান্ত করে বলেন, গিয়াস ভাই, আমি এবং আমাদের আগের স্টেয়ারিং কমিটির সদস্যদের নিয়ে নতুন করে নতুন সদস্য যুক্ত করে আমরা সবার সামনে একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করবো। তিনি বলেন, গিয়াস ভাই যে কমিটি ঘোষণা করেছেন আমরা সেটা রেখেই পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করবো। স্টিয়ারিং কমিটির চেয়ারম্যান গিয়াস আহমেদ বলেন, আমরা যে কমিটি ঘোষণা করেছি তা রেখে নতুন করে সমন্বয় করে দ্রুত সবার সামনে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করবো।
এ ঘটনার এক মাসের মধ্যেই চিত্র পাল্টে যায়। ভেতরে ভেতরে বাংলাদেশি আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব কানেকটিকাট (বাক)এর নেতৃবৃন্দদেরকে চাপ প্রয়োগ করেন এই বলে যে, ফোবানার চেয়ারম্যান আলী ইমাম শিকদারের নেতৃত্বে কানেকটিকাটের ফোবানা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু অন্যায় তারা মেনে নেয়নি বাক নেতারা। তারা সাফ জবাব দিয়েছেন পুর্ব ঘোষিত স্টেয়ারিং কমিটির চেয়ারম্যান গিয়াস আহমেদের নেতৃত্বে ফোবানা সম্মেলন হলে তারা করবেন তা নাহলে বাক ফোবানা সম্মেলন করবেন না। বাকের এ সিদ্ধান্তের পর গিয়াস আহমেদ ও শাহনেওয়াজের মধ্যে বিভক্তি দেখা দেয়। উভয়েই আগামী সেপ্টেম্বর ১-৩ লেবার ডে’র সপ্তাহান্তে কানাডার টরোন্টোতে পৃথক পৃথক ফোবানা সম্মেলন করার ঘোষনা দেন।
এ বিষয়ে ফোবানা স্টিয়ারিং কমিটির চেয়ারম্যান গিয়াস আহমেদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, কানেকটিকাটে ফোবানা সম্মেলন বাতিলের অন্যতম কারণ হচ্ছে কিছু দুষ্ট লোকের কুচক্রান্ত। তারা আমাকে মাইনাস করে সংগঠনের চেয়ারম্যান দাবিদার আলী ইমাম শিকদারের নেতৃত্বে কানেকটিকাটে ফোবানা সম্মেলন করা ষড়যন্ত্র করেছিল, কিন্তু বাক তা করতে দেয়নি। আমিও এ বিষয়ে তাদের সিদ্ধান্তে অনড় ছিলাম বলেই ব্যাড এলিমেন্টদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে দেওয়া হয়নি। তবে ফোবানা নিয়ে চক্রান্তকারীদের চিরদিনের মত প্রতিহত করা হবে। আমরা শিগিগির সে ব্যবস্থা করবো।
ফোবানা স্টিয়ারিং কমিটির মেম্বার সেক্রেটারি শাহ নেওয়াজের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। পরে ক্ষুদেবার্তায় জানতে চাওয়া হয় পুর্বঘোষিত কানেকটিকাটের ফোবানা বাতিল করা হয়েছে, এর কারণ কি? দোয়া করে জানাবেন। কিন্তু তিনি সঠিক উত্তর না দিয়ে বলেন তিনি কানাডায় রয়েছেন সোমবার ফিরে এসে ফোন করবেন। তিনি ফোন করে আর কোন জবাব দেননি।
ভাইস চেয়ারম্যান কাজী সাখাওয়াত হোসেন আজম মুঠো ফোনে জানান, কানেকটিকাটে সুবিধামত হল খুঁজে পাইনি ফলে ফোবানা সম্মেলন বাতিল করা হয়েছে। যদিও তার এ কথার মিথ্যাচারিতার প্রমান পাওয়া গেছে। তার দেওয়া এ তথ্য সঠিক নয় বলে ফোবানার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।
বাংলাদেশি আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব কানেকটিকাট (বাক)-এর সভাপতি, সাধারন সম্পাদক, সহসভাপতি, সাংগঠনিক সম্পাদক, গণসংযোগ সম্পাদক ও সাংস্কৃতিক সম্পাদককে পৃথক পৃথকভাবে ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়ে সঠিক কারন জানতে চাওয়া হয়েছিল কিন্তু তারা এ বিষয়ে সঠিক উত্তর দিতে ব্যর্থ হয়েছেন।

বিপি/এসএম

You may also like

Leave a Comment

কানেকটিকাট, যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রকাশিত বৃহত্তম বাংলা অনলাইন সংবাদপত্র

ফোন: +১-৮৬০-৯৭০-৭৫৭৫   ইমেইল: bpressusa@gmail.com
স্বত্ব © ২০১৫-২০২৩ বাংলা প্রেস | সম্পাদক ও প্রকাশক: ছাবেদ সাথী