Menu

সর্বশেষ
সর্বশেষ


এম এ আহমেদ আরমান, চট্টগ্রাম থেকে : অবশেষ সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ইতিহাস বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শাহ। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।)

রবিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাত ১০ টার দিকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

ড. মোহাম্মদ শাহ এর বর্ণাঢ্য জীবন: অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শাহ ফেনী জেলার সোনাগাজী উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের আহম্মদপুর গ্রামের হাকিম মৌলভী মজিবুল হকের জৈষ্ঠ পুত্র। ছাত্র জীবন থেকেই মোহাম্মদ শাহ প্রচন্ড মেধাবী ছিলেন। তিনি নবাবপুর আমিরাবাদ বিসি লাহা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মেট্রিকুলেশনে (এসএসসি) স্টেন্ড করে পাশ করেন। তৎকালীন বৃহত্তর নোয়াখালীর মধ্যে একমাত্র তিনিই স্টেন্ড করেন এবং সম্মিলিত মেধা তালিকায় তিনি ৩য় হয়েছিলেন। এরপর চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্র জীবন শুরু করেন। সেখান থেকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য মনোনীত হয়ে পড়াশোনা শেষে একই বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা শুরু করেন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যুক্তরাজ্য হতে সর্বোচ্চ ডিগ্রি পি.এইচ.ডি নেওয়ার সুযোগ করে দেন।

তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম দিকের ডক্টরেট করা শিক্ষকদের মধ্যে অন্যতম। শিক্ষকতা জীবনে তিনি কবি আলাউল হলের প্রভোষ্ট, ইতিহাস বিভাগের চেয়ারম্যান, কলা অনুষদের ডীন, চট্টগ্রাম ভাটিয়ারীস্থ সেনাবাহিনীর অফিসার ক্যাডেট একাডেমি তথা বাংলাদেশ মিলেটারি একাডেমির গেষ্ট অধ্যাপক হিসেবে বহু ক্যাডেট অফিসারের শিক্ষক হিসাবে শিক্ষা দান করেছিলেন। চাকরীর মেয়াদ পূর্ণতা সাপেক্ষে ২০১৭ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অবসরে যান তিনি। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশেই নিজের উপার্জনের অর্থে একখন্ড জমি ক্রয় করে স্ত্রী ও ছেলে-মেয়ে নিয়ে বসবাস করছেন এবং সর্বশেষ তিনি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে খণ্ডকালীন অধ্যাপক হিসাবে চাকরি করেন এবং মারা যাওয়ার আগ পর্যন্ত সেখানকার খণ্ডকালীন অধ্যাপকের দায়িত্বে ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত ২২শে সেপ্টেম্বর চবি ক্যাম্পাস সংলগ্ন হাটহাজারী প্রধান সড়কে সিএনজি, বাসের বিপরীতমুখী সংঘর্ষে গুরুতর আহত হন তিনি। একই দুর্ঘটনায় সিএনজি ড্রাইভারসহ ৩ জন ঘটনাস্থলে মারা যায়। পরবর্তীতে অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শাহ্কে গুরুতর আহতাবস্থায় চট্টগ্রাম নগরীর জি.ই.সি মোড় সংলগ্ন মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয়রা।

সূত্র জানায়, রবিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা পর্যন্ত চট্টগ্রামেই চিকিৎসারত ছিলেন তিনি। এদিন রাতেই অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শাহকে হেলিকপ্টার যোগে ইমার্জেন্সি ঢাকায় নেওয়া হয়।

বিপি/আর এল


Leave a Comments

avatar
  Subscribe  
Notify of