Menu

সর্বশেষ
সর্বশেষ


নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি: নিউ ইয়র্কে প্রবাসীদের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী সুবীর নন্দী। গত ২৪ জানুয়ারী সিটির উডসাইডের কুইন্স প্যালেসে নিউ ইয়র্ক প্রবাসীদের দেওয়া সংবর্ধনা পেয়ে কণ্ঠশিল্পী সুবীর নন্দী নিজেকে ধন্য মনে করেন।এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন নিউ ইয়র্কের পন্ডিত কিষান মহারাজ তাল-তরঙ্গ ইনস্টিটিউট।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন ও বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল নিউ ইয়র্কের কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসা।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আয়োজক সংগঠনের তপন মোদক। এছাড়াও শুভেচ্ছা বক্তব্য করেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠযোদ্ধা শহীদ হাসান, সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকার সম্পাদক ও টাইম টেলিভিশন-এর সিইও আবু তাহের, বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি নার্গিস আহমেদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবী শাহ নেওয়াজ, বিশিষ্ট রিয়েল এস্টেট ইনভেস্টর ও সমাজসেবী মো. আনোয়ার হোসেন, চ্যানেল আই-এর যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি রাশেদ আহমেদ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে সুবীর নন্দীকে সংগঠনের পক্ষে ক্রেস্ট ও উত্তরীয় প্রদান করা হয়।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই পন্ডিত কিষান মহারাজ তাল-তরঙ্গ ইনস্টিটিউট, নিউ ইয়র্কের শিক্ষার্থীরা সমবেতভাবে তবলা বাজিয়ে উপস্থিত দর্শক-শ্রোতাদের মুগ্ধ করেন। এরপর উপমহাদেশের প্রখ্যাত সেতার বাদক ওস্তাদ খুরশিদ খাঁর দুই সন্তান মুরশিদ খাঁ ও মোশাররফ খাঁ যুগলবন্দী সেতার বাজিয়ে শোনান। অনুষ্ঠানে পিতা-পুত্র যথাক্রমে তপন মোদক ও সজীব মোদকের তবলা আর দুই ভাই মুরশিদ খাঁ ও মোশাররফ খাঁ’র সেতার পরিবেশনও দর্শক-শ্রোতাদের মুগ্ধ করে। কিংবদন্তী শিল্পী সুবীর নন্দী’র গান শুরুর আগে একটি গান পরিবেশন করেন প্রবাসের অন্যতম জনপ্রিয় শিল্পী তানভীর শাহীন।
অনুষ্ঠানে সুবীর নন্দী তার বক্তব্যে নিজেকে একজন ‘ক্ষুদ্র শিল্পী’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, আমি সংবর্ধনা পাওয়ার মতো শিল্পী নই। গুরুদের কাছ থেকে যেমন গান শিখেছি, এখন নতুন প্রজন্মের আনেকের কাছ থেকেও গান শিখছি। আমরা গুরুদের কাছ থেকে বকা-ঝকা খেয়ে গান শিখেছি।
আর গান জনপ্রিয় করতে শিল্পীদের মতো যন্ত্রীদের অবদানও কম নয়। তিনি ওস্তাদ খুরশীদ খা-কে গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করে বলেন, তার যোগ্য দুই পুত্রও যোগ্য হয়ে উঠেছেন। তিনি তবলা বাদক তপন মোদক ও সজীব মোদকের প্রশংসা করে বলেন, তাদের তবলায় বাংলাদেশের শতকোটি মানুষের কন্ঠ ঝড় তুলেছে। তপন মোদকের বড় গুণ সে শিল্পীদের সম্মানন দিতে জানে।
শিল্পী সুবীর নন্দী ‘পাহাড়ের কান্না দেখে তোমরা তাকে ঝর্ণা বলো’ জনপ্রিয় গান দিয়ে তার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের গান শুরু করেন। এ সময় উপস্থিত দর্শক-শ্রোতা তাকে দাঁড়িয়ে করতালির মাধ্যমে অভিনন্দিত করেন। পরবর্তীতে উপস্থিত শ্রোতাদের অনুরোধে সুবীর নন্দী একে একে গেয়ে যান, বন্ধু হতে চেয়ে তোমার শত্রু বলে গণ্য হলাম, কত যে তোমাকে বেসেছি ভালো, আমি বৃষ্টির কাছ থেকে কাঁদতে শিখেছি, হাজার মনের কাছে প্রশ্ন রেখে, ‘কারে দেখাবো মনের দুঃখ গো, দিন যায় কথা থাকে, কেন ভালোবাসা হারিয়ে যায় দুঃখ হারায় না।
অনুষ্ঠানের মাঝে সুবীর নন্দী মঞ্চে ডেকে নেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের আরেক শিল্পী শহীদ হাসানকে। তার অনুরোধে শহীদ হাসান একটি গান পরিবেশন করেন। এছাড়া তিনি তার সঙ্গীত জীবনের সাথী নিউ ইয়র্ক প্রবাসী নাদিম আহমেদ ও নিউজার্সী প্রবাসী নাইস-কে মঞ্চে ডেকে নেন এবং তারা শিল্পীকে যন্ত্র সঙ্গীতে সঙ্গত করেন।
সুবীর নন্দীর গানে যন্ত্রসঙ্গীতে ছিলেন তপন মোদক, পার্থ গুপ্ত, নাদিম আহমেদ, রিচার্ড, সজীব মোদক ও তানভীর শাহীন। পুরো অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন নিউ ইয়র্কের জনপ্রিয় আবৃত্তিকার গোপন সাহা।

বিপি/সিএস


Leave a Comments

avatar
  Subscribe  
Notify of