Menu

সর্বশেষ
সর্বশেষ


বাংলাপ্রেস ডেস্ক: বিশ্ব জুড়ে ভয়াবহ আকার ধারণ করা করোনাভাইরাসের প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশে। ইতোমধ্যে এ রোগে পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত ঠেকে দুই অংকের ঘরে। এমন অবস্থায় এ রোগের সংক্রমণ ঠেকাতে সাধারণ মানুষকে ঘরে থাকার আহ্বান জানায় সরকার। এতেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় পুলিশের সঙ্গে মাঠে নামানো হয়েছে সেনাবাহিনীকে।

গত কয়েক দিন থেকেই মাঠে রয়েছে সেনা কর্মকর্তারা। বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) থেকে নিয়ম নাম মানলে অ্যাকশনে যাচ্ছেন তারা। অযথা রাস্তায় বের হলেই পিটুনি কিংবা মাস্ক পরতে বলছেন।

সূত্রে জানা যায়, জেলা প্রশাসনকে সাথে নিয়ে চট্টগ্রামে সেনাবাহিনীর ১৭টি টিম কাজ করছে। এর বাইরে চট্টগ্রাম জেলাসহ তিন পার্বত্য জেলায় মোট ৪৩টি টিম এখন করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মাঠে আছে। চট্টগ্রামে অভিযানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন জেলা প্রশাসনের ছয়জন ম্যাজিস্ট্রেট। আছেন স্ব-স্ব থানার ওসিরাও।

সরেজমিনে দেখা যায়, গত কয়েকদিনে নগরের কিছু এলাকায় অভিযান চালিয়ে দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয় সেনাবাহিনী। এসময় গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতে করোনাভাইরাস নির্মূল করতে সচেতনতামূলক মাইকিং করে প্রচারণা চালায় তারা।

মাইকিংয়ে সেনাবাহীনির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, ‘করোনা প্রতিরোধে মাস্ক ব্যবহার করুন, দোকানপাট বন্ধ রাখুন, বাসায় অবস্থান করুন অযথা রাস্তাঘাটে ঘোরাফেরা করবেন না।’

নগরীর মতো সারাদেশেও স্থানীয় প্রসাসননে সহায়তা করছে সেনাবাহিনী। দেশের সব জেলা প্রশাসন, পুলিশ ও সেনাবাহিনীর যৌথ দল নগরের বিভিন্ন এলাকায় টহল দিতে দেখা যায়। এসময় সড়কে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বের হলে তাকে বাসায় পাঠিয়ে দিয়ও দেখা যায়।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম সংবাদ মাধ্যমকে জানান, বিদেশফেরত যারা হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে চলছে না, তাদের তদারক করা হচ্ছে। মূলত তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখার পাশাপাশি ৫ থেকে ৭ জনের বেশি লোক যেন জড়ো না হয় বিভিন্ন বাহিনীর সমন্বয়ে সেটি নিশ্চিত করা হচ্ছে।

বিপি/কেজে


Leave a Comments

avatar
  Subscribe  
Notify of

সর্বশেষ সংবাদ