Menu

সর্বশেষ
সর্বশেষ


এম আর আলী টুটুল সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি : ফরিদপুর থেকে তুলে নিয়ে আসা এক মুসলিম যুবতীকে মন্দিরে বিয়ে করার অপরাধে সৈয়দপুরের লাল বাবু নামের এক হিন্দু যুবকের ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ডের নামে হাতিয়ে নেয় দালাল চক্র। গতকাল ১৩ মে সোমবার উপজেলা বোতলাগাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে এক শালিসী বৈঠকে ওই যুবকের অর্থদন্ড করা হয়। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় চলছে নানা গুঞ্জন।

জানা যায়, ফরিদপুর সদরের কামারডাঙ্গী এলাকায় ঘোড়াগাড়ী চালক দুলাল শেখ এর মেয়ে ইশিতা আক্তার হাসির সাথে সৈয়দপুর বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের বৈশ্য পাড়ার নিশি চন্দ্রের ছেলে লাল বাবুর মোবাইলের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। নিজেকে কোটিপতি বাবার একমাত্র ছেলে পরিচয় দিয়ে বিয়ের করার প্রতিশ্রুতিতে ওই যুবতীকে ফরিদপুর থেকে সৈয়দপুর নিয়ে আসে যুবকটি।

এক পর্যায়ে বৈশ্য পাড়া এলাকার মেম্বার মোতালেব হোসেনের উপস্থিতে ১০ মে হিন্দু ধর্ম মোতাবেক তাদের বিয়ে হয়। ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। ঘটনা ধামাচাপা দিতে মেম্বারসহ দালাল চক্রটি চেষ্টা চালায় এবং এক পর্যায়ে সাংবাদিকদের মাধ্যমে ওই যুবতীর পরিবারকে খবর দেওয়া হলে তারা ১২ মে রাতে ঘটনাস্থল এলে ১৩ মে সকালে বোতলাগাড়ী পরিষদ চত্তরে একটি শালিসী বৈঠক করা হয়। সেখানে উপস্থিত ছিলেন ওই ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হেলাল চৌধুরী, মেম্বার মোতালেবসহ অনেকে। শালিস বৈঠকে কৌশল অবলম্বন করে যুবকের বাবা নিশি চন্দ্রের ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। কিন্তু মাত্র ১০ হাজার টাকা যুবতী হাসির পরিবারের হাতে দিয়ে বাকী টাকা মেম্বারসহ ওই চক্রটি হাতিয়ে নিয়ে মেয়েসহ তার পরিবারকে তড়িঘড়ি করে ওই এলাকা থেকে সড়িয়ে ফেলে।

এলাকাবাসী জানায় ওই এলাকার মেম্বার মোতালেবের কারণে ওই মুসলমান যুবতীর জীবন নষ্ট হয়েছে। আর অর্থদন্ড হয়েছে হিন্দু যুবকটির। শুধুমাত্র নিজ স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে ওই মেম্বার এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। অভিযোগ রয়েছে মেম্বার মোতালেব বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত রয়েছে।

বিপি/আর এল


Leave a Comments

avatar
  Subscribe  
Notify of

এই বিভাগের আরও সংবাদ