Menu

সর্বশেষ
সর্বশেষ


এম আর আলী টুটুল সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি : নীলফামারীর সৈয়দপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে নারীসহ ৩ জনকে পিটিয়ে টাকা ও মোবাইল ছিনতাই করেছে প্রতিপক্ষ। ঘটনাটি ঘটেছে ২২ এপ্রিল সন্ধ্যায় বোতলাগাড়ী ইউনিয়নে। থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, খোর্দ্দ বোতলাগাড়ী চান্দিয়ার মোড়ে পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন ওই এলাকার স্থানীয়রা। অনুষ্ঠান চলাকালে খোর্দ্দ বোতলাগাড়ী কিসামত কাদিখোল ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের ১০/১২ জন যুবক অনুষ্ঠানে আগত মহিলাদের দিকে নাচ শুরু করে এবং মহিলাদের দিকে অশ্লিল অঙ্গিভঙ্গিসহ উত্যক্ত করে। এতে স্থানীয় যুবকরা তাদের সতর্ক করে দেয়। কিন্তু ওই যুবকরা উত্তেজিত হয়ে স্থানীয় এক কিশোরকে মেরে নাক ফাটিয়ে রক্তাক্ত করে। অবস্থা দেখে অনুষ্ঠানের আয়োজকরা এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়।

পরে তারা এলাকায় খবর দিলে দেশীয় অস্ত্রসহ প্রায় ৭০/৮০ জন নারী পুরুষ অনুষ্ঠান স্থলে হামলার উদ্দ্যেশে আসলে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা স্থানীয় তিন ইউপি সদস্য তাদের বুঝিয়ে ফিরিয়ে দেয়। এছাড়া ওই তিন ইউপি সদস্য বলে যে, বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মিমাংসা করা হবে। সে অনুযায়ী গত ২০ এপ্রিল স্থানীয় ইউপি পরিষদে বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরিষদের চেয়ারম্যান না থাকায় বৈঠকটি স্থগিত করা হয়। বৈঠক না হওয়ায় ডাঙ্গাপাড়ার যুবকরা উত্তেজিত হয়ে পড়ে। তারা সিদ্ধান্ত নেয় যে, চান্দিয়ার মোড়ের যাকে রাস্তায় পাবে তাকেই মারবে। এরই অংশ হিসাবে ২২ এপ্রিল সন্ধ্যায় দুলাল হোসেনের ছেলে তহিদুল ইসলাম পোড়াহাট বাজারে আসলে ডাঙ্গাপাড়ার সালাম, দুলাল, মঞ্জুরুল ওরফে বাবু, মিন্টু, কালাম, সাদ্দাম, ছামেনুল, খয়রুল, এছারুল, রানা তাকে ভ্যান থেকে টেনে হেচড়ে নামিয়ে এলোপাতাড়ি মারডাং করে। খবর শুনে তার ভাই সাদিকুল ও ফুফু আঞ্জুয়ারা এগিয়ে আসলে তাদেরকেও পিটিয়ে আহত করা হয়। এসময় তহিদুলকে একটি ঘরে আটকিয়ে রাখা হয়। ঘটনার সময় তহিদুলের কাছ থেকে ইট কেনার ৩০ হাজার টাকা একটি মোবাইল ও সাদিকুলের একটি মোবাইল ছিনিয়ে নেয়।

আহতদের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়। যাওয়ার সময় হুমকি দিয়ে যায় যে, এ নিয়ে বারাবাড়ি করলে পরিণাম ভালো হবে না। আহতদের উদ্ধার করে সৈয়দপুর ১০০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহতদের মধ্যে সাদিকুল ও আঞ্জুয়ারা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলে আসে এবং তহিদুলের অবস্থা গুরুত্বর হওয়ায় সে বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছে। ঘটনাস্থল চান্দিয়ার মোড় গেলে শতশত লোক সেদিনের ঘটনা বর্ণনা করেন। বিচার চেয়ে তহিদুল ইসলাম উল্লেখিত ব্যক্তিদের নামে সৈয়দপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। বর্তমানে দুটি এলাকার মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ নিয়ে যেকোন সময় বড় ধরনের সংর্ঘষের ঘটনা ঘটতে পারে।

এলাকাবাসী সংঘর্ষ এড়াতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এসব অভিযোগ নিয়ে কথা হয় সালাম ও দুলালের সাথে তারা পাল্টা অভিযোগ করে বলেন ওই দিন আমাদের ছেলেদের তারা মেরেছে। বিচার না পাওয়ায় তহিদুলকে আটক করা হয়েছিল। কে বা কারা মেরেছে আমরা জানি না।

বিপি/আর এল


Leave a Comments

avatar
  Subscribe  
Notify of

সর্বশেষ সংবাদ