ভার্জিনিয়ায় বর্ণবাদী কেকেকে সমর্থকদের সঙ্গে বিরোধীদের সংঘর্ষ



নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি: যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যে শ্বেতাঙ্গ সমর্থকদের সংগঠন কু ক্লাক্স ক্লান (কেকেকে) সঙ্গে বিরোধীদের সংঘর্ষ হয়েছে। পুলিশ বিরোধী বিক্ষোভকারীদের ওপর টিয়ারশেল ও জলকামান ছুড়েছে। একই সঙ্গে বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের গৃহযুদ্ধের সময় উত্তর ভার্জিনিয়ায়

কনফেডারেট আর্মির নেতৃত্বদানকারী জেনারেল রবার্ট ই লির একটি মূর্তি শার্লটসভিল এলাকা থেকে সরানোর কথা চলছে। জেনারেল লি বর্ণবাদী এবং দাসপ্রথার পক্ষে ছিলেন। লির এই মূর্তি অপসারণের পরিকল্পনার বিরোধিতা করে কেকেকে’র কয়েক শ সমর্থক শনিবার পুলিশ প্রহরায় জাস্টিস পার্কে জড়ো হন। এ সময় তাঁদের অনেকের হাতে দাসপ্রথাপন্থী কনফেডারেট আর্মির পতাকাও দেখা গেছে। তাঁরা জড়ো হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে কয়েকশ লোক ‘লজ্জা! লজ্জা!’ এবং ‘বর্ণবাদীরা নিপাত যাক’ স্লোগান দিয়ে পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে হামলা চালায়।
পুলিশ কেকেকে বিরোধীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার গ্যাস ছোড়ে এবং বেশ কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে। পরে কেকেকে সমর্থকদের এলাকা থেকে নিরাপদে সরিয়ে দেওয়া হয়।
কনফেডারেট স্মারক ভাস্কর্য অপসারণের প্রতিবাদে গত মে মাসে ভার্জিনিয়ায় মশাল মিছিল বের করা হয়। স্থানীয় মেয়র ওই বিক্ষোভের নিন্দা জানিয়েছিলেন। এর পরের দিন সেখানে বর্ণবাদবিরোধীরা পাল্টা বিক্ষোভ মিছিল বের করেছিল।
ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্য পুলিশের একজন মুখপাত্র কেকেকে বিরোধীদের এই আক্রমণাত্মক তৎপরতাকে ‘বেআইনি’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। অনেকে মনে করেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গদিতে বসার পর আমেরিকাজুড়ে বর্ণবাদী কেকেকে মাথাচাড়া দিয়েছে এবং শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যের বিস্তার ঘটানোর চেষ্টা চালাচ্ছে।